শীর্ষ সংবাদঃ

» অপেরেশনের স্থানে হার্নিয়া (Incisional hernia) কি? কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ – ডাঃ ফারুকুজ্জামান

প্রকাশিত: 14. November. 2020 | Saturday

অপেরেশনের স্থানে হার্নিয়া (Incisional hernia) কি? কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ l

ডাঃ ফারুকুজ্জামান

প্রেক্ষাপট:
আকলিমা বেগম (৪০ বছর), গৃহবধূ, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভর্তি হলেন তলপেটে (আগের অপেরেশনের স্থানে) গোটা/ ফোলা নিয়ে l রোগীর বক্তব্য মতে, দুই বছর আগে জরায়ুর অপারেশন হয়েছিল একটি প্রাইভেট ক্লিনিক থেকে l এরপর প্রায় চার মাস পর থেকে অপেরেশনের স্থানে ফোলা লক্ষ্য করেন, যা কাঁশি দিলে বেশি ভালোভাবে বোঝা যেত l প্রথম দিকে ফোলা স্থান এমনি মিলিয়ে যেত l আবার বেরিয়ে আসতো l গত এক মাস ফোলা জায়গা আর মিলিয়ে যেতো না এবং শক্ত হয়ে ব্যথা শুরু হলো l গত এক সপ্তাহ ধরে পায়খানা বন্ধ হয়ে, পেট ফুলে গেছে l আসলে তিনি যে সমস্যাটিতে ভুগছিলেন, তা হলো ইনসিশনাল হার্নিয়া বা অপেরেশনের স্থানে হার্নিয়া l

হার্নিয়া কি?
শরীরের কোনো অংশের প্রাচীর/দেয়ালের অস্বাভাবিক রকম দুর্বলতার কারণে ভিতরের কোনো অঙ্গ বা তার অংশ বিশেষ দূর্বল স্থান দিয়ে বেরিয়ে আসা l উদাহরণ দেওয়া যাক l কুঁচকির দেয়ালের অংশ দূর্বল হয়ে যাওয়ায়, পেটের নাড়ী, মূত্রথলি ইত্যাদি দূর্বল অংশ দিয়ে কুঁচকি বা কুঁচকি হয়ে অন্ডকোষে চলে আসা l আর এটাই হলো Inguinal Hernia বা কুঁচকির একশিরা রোগ l

ইনসিশনাল হার্নিয়া (Incisional hernia) কি?
আর ইনসিশনাল হার্নিয়া হলো অপেরেশনের স্থানের দেয়ালের অস্বাভাবিক দুর্বলতার কারণে ভিতরের কোনো অঙ্গ বা তার অংশ বিশেষ দূর্বল স্থান দিয়ে বেরিয়ে আসা l অধিকাংশ ক্ষেত্রে হার্নিয়ার স্থান দিয়ে পেটের ভিতরের খাদ্যনালী এসে হার্নিয়ার থলির মধ্যে বেরিয়ে আসে l প্রাথমিক অবস্থায় খাদ্যনালী ভেতরে ঢুকে গেলে, এমনি এমনি ফোলা কমে যায় l এভাবে খাদ্যনালী একবার বাইরে বেরিয়ে আসে, আবার ভিতরে চলে যায় l পরবর্তীতে খাদ্যনালী পুরোপুরি ভাবে আটকে গেলে, পায়খানা বন্ধ হয়ে পেট ফুলে যেতে পারে l এ অবস্থাও অপারেশন না করা হলে, খাদ্যনালীতে পচন ধরে জীবন সংশয় দেখা দিতে পারে l
এই রোগের পাঁচটি ধাপ আছে:
প্রথম ধাপ (Reducible): ফোলা অংশ চাপ দিলে, শুয়ে পড়লে বা নিজে নিজে পেটের ভেতরে ঢুকে যায় l
দ্বিতীয় ধাপ (Irreducible): ফোলা অংশ আর ভেতরে ঢুকে না l
তৃতীয় ধাপ (Obstructed): পেটের নাড়ী ফোলা অংশে আটকে গিয়ে পায়খানা বন্ধ হয়ে যায় l
চতুর্থ ধাপ (Strangulated): আটকে পড়া পেটের নাড়ীর রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যায় l
পঞ্চম ধাপ (Inflammed): আটকে পড়া পেটের নাড়ীতে ইনফেকশন এবং পচন ধরে l
চতুর্থ এবং পঞ্চম ধাপ অত্যন্ত ভয়াবহ l এমনকি জরুরী অপারেশনের পরও, রোগীর জীবন নিয়ে সংশয় সৃস্টি হতে পারে l তাই মারাত্মক জটিলতা এড়াতে, প্রথম বা দ্বিতীয় পর্যায়ে অপারেশন করিয়ে ফেলা অতি আবশ্যক l তবে হার্নিয়া আটকে গেলে, বিশেষত তৃতীয় ধাপে পৌঁছে গেলে, সময় নষ্ট বা অবহেলা না করে, জটিলতা সৃষ্টির আগেই নিকটস্থ সরকারি হাসপাতাল বা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন l এখানে মনে রাখা প্রয়োজন যে, ইনসিশনাল হার্নিয়া যে পর্যায়েই থাকুক না কেন, অপারেশন ভিন্ন অন্য কোনো নিরাময়যোগ্য চিকিৎসা.নেই l

হার্নিয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাবক সমূহ (যেগুলোর চিকিৎসা না করিয়ে হার্নিয়ার অপারেশন করালে, ভবিষ্যতে আবার একই স্থান দিয়ে হার্নিয়া হতে পারে):
১) কাঁশি, শ্বাস-কষ্ট, এজমা, ধূমপান ইত্যাদি l
২) প্রস্রাবের সমস্যা (পুরুষদের ক্ষেত্রে, প্রস্টেট গ্লান্ড বড় হয়ে যাওয়া জনিত সমস্যা) l
৩) কোষ্টকাঠিন্যের সমস্যা ইত্যাদি l

ডাঃ ফারুকুজ্জামান
FCPS, MS, MRCS, MCPS,
সার্জারি বিশেষজ্ঞ,
খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৩৮ বার

error: Content is protected !!