শীর্ষ সংবাদঃ

» চিকিৎসাসেবায় সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অগ্রযাত্রা

প্রকাশিত: 08. October. 2021 | Friday

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

আজমীর হোসাইন, সাতক্ষীরাঃ বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সীমান্ত বেষ্টিত একটি জেলা সাতক্ষীরা । স্বাধীনতার পর থেকে দীর্ঘদিন এই জেলার মানুষ উন্নত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত ছিল । উন্নত চিকিৎসার জন্য এ জেলার মানুষদের পার্শ্ববর্তী জেলা গুলোতে বা রাজধানী ঢাকাতে যেতে হয় । সীমান্ত বেষ্টিত জেলা হওয়ার কারণে এদের বড় একটা অংশ পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে চিকিৎসা সেবা নিতে চলে যায় ।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রলংয়কারী ঘূর্ণিঝড় আয়লার পর ২০০৯ সালের ২৩ জুলাই সাতক্ষীরার দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে এসে এই এলাকার মানুষদের উন্নত চিকিৎসা সেবার জন্য একটি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন । তার ঘোষণার পর মাত্র দুই বছরের ব্যবধানে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা . আ.ফ.ম রুহুল হক এমপির প্রচেষ্টায় ২০১১ সালে একটি ভাড়া বাড়িতে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয় ।

পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হওয়ার পূর্বেই চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে শুরু করেছে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল । বর্তমানে এই হাসপাতালে লেজার থেরাপির মাধ্যমে কিডনির পাথর অপারেশন , কিডনি ডায়ালাসিসসহ বিভিন্ন জটিল রোগের চিকিৎসা শুরু হয়েছে । স্থাপিত হচ্ছে ক্যাথ ল্যাব , পরামানু গবেষণা কেন্দ্র , নিজস্ব অক্সিজেন উৎপাদন প্লান্টসহ আধুনিক চিকিৎসা সেবার বিভিন্ন উন্নত প্রযুক্তি ।

এছাড়া বিশ্বব্যাপি মহামারী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে এই মেডিকেল কলেজে আর টি পিসিআর ল্যাব স্থাপন করে covid-19 টেস্টসহ করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে ।

২০১৭ সালে নিজস্ব নতুন ভবনে শুরু হয় হাসপাতালের আংশিক চিকিৎসা কার্যক্রম । করোনা পরিস্থিতির মধ্যে গত বছর অক্টোবর থেকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগসহ পর্যায়ক্রমে ২৫০ বেড হাসপাতালের পূর্ণাঙ্গ কার্যক্রম শুরু হয় । ইতোমধ্যে ৫০০ বেড হাসপাতালের অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে । প্রশাসনিক অনুমোদনও দেওয়া হয়েছে ৫০০ বেড হাসপাতালের । এখন জনবল নিয়োগ সম্পন্ন হলে পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হবে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ ও ৫০০ বেড হাসপাতালের কার্যক্রম ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২২ বার

error: Content is protected !!